ফরজ গোসলের নিয়ম

গোসল আরবি শব্দ। অর্থ হচ্ছে পুরো শরীর ধোয়া। শরিয়তের পরিভাষায়, পবিত্রতা ও আল্লাহর নৈকট্য পাওয়ার উদ্দেশ্যে পবিত্র পানি দিয়ে পুরো শরীর ধোয়াকে গোসল বলা হয়। আল্লাহ নির্দেশ দেন, আর যদি তোমরা অপবিত্র হও, তবে সারা দেহ পবিত্র করে নাও। (সুরা মায়েদা, আয়াত: ৬); মাসিক বন্ধ হওয়ার পর নারীদের পবিত্র হওয়ার জন্য গোসল করা ফরজ। সন্তান প্রসবের পর নারীদের গোসল করা ফরজ। মৃত ব্যক্তিকে গোসল দেওয়া ফরজ।

Apr 30, 2024 - 12:56
 0  7

গোসলের ফরজ কাজ তিনটি

১. কুলি করা। (বুখারি, ইবনে মাজাহ)

২. নাকে পানি দেওয়া। (বুখারি, ইবনে মাজাহ)

৩. সারা শরীর পানি দিয়ে এমনভাবে ধোয়া, যাতে দেহের চুল পরিমাণ জায়গাও শুকনো না থাকে। (আবু দাউদ)

ফরজ গোসলের নিয়ম

(১) ফরজ গোসলের পূর্বে ইস্তিঞ্জা অর্থাৎ পেশাব করা।


- মুসান্নাফে আব্দুর রাজ্জাক ১০২০

(২) শুরুতে بسم الله الرحمن الرحيم পড়া।


- মুসনাদে আহমাদ ১২৬৯২

(৩) পৃথকভাবে উভয় হাত কব্জি সহ ধোয়া।


- বুখারী ২৪৮

(৪) শরীর বা কাপড়ের কোন স্থানে নাপাকি লেগে থাকলে প্রথমে তা তিনবার ধুয়ে পবিত্র করে নেওয়া।


- মুসলিম ৩২১

(৫) নাপাকি লেগে থাকলে বা না লেগে থাকলে সব অবস্থায় গুপ্তাঙ্গ ধৌত করা। এরপর উপরে হাত ভালোভাবে ধুয়ে নেওয়া।


- বুখারী ২৪৯

(৬) সুন্নত তরিকায় পূর্ণ অজু করা। তবে গোসলের স্থানে পানি জমা থাকলে গোসল শেষ করে পা ধৌত করবে।


- বুখারী ২৬০

(৭) প্রথমে মাথায় পানি ঢালা।


- বুখারী ২৫৬

(৮) এরপর ডান কাঁধে।


- বুখারী ২৫৪

(৯) এরপর বাম কাঁধে


- বুখারী ২৫৪

(১০) অতঃপর অবশিষ্ট শরীর ভিজানো।


- বুখারী ২৭৪

(১১) সমস্ত শরীর এমন ভাবে তিনবার পানি পৌঁছানো যেন একটি পশমের গোড়াও শুষ্ক না থাকে।


- আবু দাউদ ২৪৯

(১২) সমস্ত শরীর হাত দ্বারা ঘষে মেজে ধৌত করা।


- তিরমিজি ১০৬

What's Your Reaction?

like

dislike

love

funny

angry

sad

wow